গড়া হলো না ইতিহাস, বিজয়ী হলেন মিশা সওদাগর

অনলাইন পত্রিকা ডেস্কঃ অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। নির্বাচনে সভাপতি পদে জনপ্রিয় খলনায়ক মিশা সওদাগর বিজয়ী হয়েছেন। উক্ত নির্বাচনে চিত্রনায়িকা মৌসুমি প্রথম মহিলা হিসেবে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তিনি সভাপতি পদে নির্বাচিত হলে চলচ্চিত্র সমিতিতে সৃষ্টি হতো নতুন ইতিহাস। কিন্তু প্রথম বারের মতো ঐ পদে একজন মহিলা প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও বিজয়ী না হওয়ায় গড়া হলো না নতুন ইতিহাস।

ছবিঃ মৌসুমি ও মিশা সওদাগর

মিশা সওদাগর – জায়েদ খান প্যানেল বিপরীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সভাপতি পদে মৌসুমি ও সাধারণ সম্পাদক পদে ইলিয়াস কোবরা নির্বাচন করেন। মোট ৪৪৯ টি ভোটের বাংলাদেশ চলচিত্র সমিতির এই নির্বাচননে মোট ভোট সংগৃহীত হয় ৩৮৬ টি।

নির্বাচনে সভাপতি পদে মিশা সওদাগর ২২৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন আর মৌসুমি পেয়েছেন ১২৫ টি ভোট। সাধারণ সম্পাদক পদে বিজয়ী হয়েছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। নির্বাচনে সব গুলো পদেই মিশা-জায়েদ প্যানেল বিজয়ী হয়েছেন। মোট ২১ টি পদে ২৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

সকাল ৯ টায় ভোট গ্রহন শুরু হলে সমিতির অন্তর্ভুক্ত চলচ্চিত্র শিল্পীরা এফডিসিতে আসতে শুরু করেন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে শিল্পী, কলাকুশলীদের উপস্থিতিও বাড়তে থাকে। বিকাল সাড়ে ৫ টায় শেষ হয় ভোট গ্রহণ। নির্বাচনে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতা ছিলো লক্ষণীয়।

নির্বাচনে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে অভিনেতা সুব্রত, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে জ্যাকি আলমগীর ও কোষাধ্যক্ষ পদে ফরহাদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এই পদ গুলোতে অন্য কোন প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন না। সমিতির মর্যাদার এই নির্বাচনে জনপ্রিয় অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন।

আরও পড়ুন

Comments are closed.